পুরনো ঢাকায় প্রতিকী ঈদ র‍্যালী আয়োজন

ঢাকা এক আশ্চর্য মোহময় জীবন্ত নগরী। এই নগরী পরতে পরতে মিশে আছে সোনালী দিনের অতীত। মুঘল আমলে এই নগরী বিকশিত হয়েছিল নানা সুষমায়, ঐতিহ্য স্থাপত্যের বিকাশে, অলংকার নির্মাণে, সূক্ষè বস্ত্র বয়নে, নকশা তৈরিতে, সুগন্ধির ব্যবহারে, উৎসবে সেই ঐতিহ্য টিকে ছিল বহুদিন।

বুড়িগঙ্গা নদীর পূর্ব তীরে শতাব্দী ধরে বিকশিত হয়েছে ঢাকা নগরী। বাংলার মাটিতে যে তিনটি মুঘল রাজধানী রয়েছে তারমধ্যে ঢাকা সবচেয়ে প্রাচীন। ১৭০০ সালে এই ঢাকা নগরী ছিল সারা বিশ্বের দ্বাদশ বৃহত্তম নগরী। ঐতিহাসিক আত্মত্যাগের মহিমায় বীরত্বের গৌরবে সমুজ্জল আমাদের এই ইতিহাস ও ঐতিহ্য। প্রাচিনতম ঢাকায় প্রতি বছরই বিশেষ বিশেষ সময় দিনগুলোতে ঢাকা ঝলমলে হয়ে উঠত। এ উৎসবের মধ্যে ছিল দুটো ঈদ। মহরমের মিছিল, হোসনী দালানের মহরমের মেলা, রমজানের কাশিদা, ঘুড়ি উড়ানো, চকবাজারের ঈদের মেলা দেখতে দূরদূরন্ত থেকে আসত পুরনো ঢাকায়। উৎসব নগরী হয়ে উঠত এই পুরাতন ঢাকা। এই উৎসবের মধ্যে ছিল ঢাকার বর্ণঢ্য ঈদের মিছিল। এই মিছিল প্রচলন হয় ব্রিটিশ যুগের শেষ অধ্যায় তথা বিংশ শতাব্দীর তৃতীয় দশক থেকে। এক সময় স্বাধীনতার পূর্বে এক সময় এই মিছিল বন্ধ হয়ে যায় বিভিন্ন্ কারনে। স্বাধীনতার পরে ১৯৯০সন থেকে ঢাকাবাসী পুরনো ঢাকায় এই মিছিলের আয়োজন করে আসছে।

ঢাকাবাসী সংগঠন ঈদুল ফিতর পালন উপলক্ষ্যে পুরনো ঢাকায় প্রতিকী ঈদ র‌্যালী আয়োজন হাজারীবাগ পার্ক সংলগ্ন ঢাকাবাসীর কার্যালয় গত ১৫ই মে ২০২১ অনুষ্ঠিত হয়। এবারের নাগরিক সচেতনতার কর্মসূচীর শ্লোগান হচ্ছে ভেজাল‘‘ মুক্ত খাবার খান সুস্থ্য থাকুন’’। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে ভার্চুয়াল উদ্বোধন করেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন এর মাননীয় মেয়র ব্যারিষ্টার শেখ ফজলে নূর তাপস। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক জনাব সুজিত রায় নন্দী, হাজারীবাগ থানার সাধারন সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা জনাব সাদেক হামিদ সাজু।

প্রধান অতিথি ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন এর মাননীয় মেয়র ব্যারিষ্টার শেখ ফজলে নূর তাপস তার বক্তব্যে বলেন পুরনো ঢাকার ঐতিহ্য সংস্কৃতি লালন ও সংরক্ষন করে আসছে ঢাকাবাসী, তাদের এই উদ্যেগ প্রশংসনীয়। ইতিমধ্যে আমরা ঢাকা দক্ষিন সিটি করপোরেশন পুরনো ঢাকার বিভিন্ন ঐতিহ্য নিয়ে কাজ করছি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here